তাজিকিস???তান-বাংলাদেশ ১ পয়েন???ট করে নিয়ে সমতায়

by  ডেস???ক রিপোর???টার | | Wednesday 1st November 2017 |10:46 AM

তাজিকিস???তান-বাংলাদেশ ১ পয়েন???ট করে নিয়ে সমতায়

অনূর্ধ্ব-১৯ ফুটবল দল যাওয়ার আগে যে কথা বলেগেছিল তা তাঁরা করে ও দেখাল গতকালের খেলায় । তাজিকিস্তানের মাঠে গিয়ে তাদের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। সুবাদে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৯ ফুটবলের বাছাইয়ে শুরু থেকেই সম্ভাবনার জায়গায় দাঁড়িয়ে এই দল।   আমরা তাদের উপর বিশ্বাস রাখতেই পারি । হয়ত একদিন তারায় আমাদের নতুন করে পরিচয় করায় দিবে বিশ্বে ।ফুটবল প্রেমী হিসেবে আমরা আর কি চাই ?

প্রথমার্ধে একটু খেলার চেষ্টা করেছিল বাংলাদেশ। সে রকম গোলের সুযোগ তৈরি করতে না পারলেও কয়েকবার আক্রমণেও উঠেছিল। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে তাজিকিস্তান কঠিন চাপে ফেলে বাংলাদেশকে। দু-দুবার খুব বিপজ্জনক জায়গায় ফ্রি কিক পায় তারা। ৭২ মিনিটে বক্সের ঠিক বাইরে থেকে গোলে শট না নিয়ে ‘মানব দেয়ালের’রে থেকে গোলে শট না নিয়ে ‘মানব দেয়ালের’ পাশ দিয়ে থ্রু বলের মতো বাড়িয়েছিল, তাতে খুলেই গিয়েছিল গোলমুখ। ডিফেন্ডার রহমত মিয়ার চমৎকার ক্লিয়ারে বেঁচে যায় বাংলাদেশ। মিনিট দুয়েক বাদে আবার একই জায়গায় ফ্রি কিক পায় তারা। এবার শট নিলেও পরাস্ত করতে পারেনি গোলরক্ষক প্রীতমকে। এরপর ম্যাচ নিয়ন্ত্রণ করলেও তাজিকিস্তান পারেনি সে রকম গোলের সুযোগ তৈরি করতে। 

ম্যাচের সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশের ডিফেন্স যেন শক্তিশালী হয়েছে। বোঝা গেছে, শেষ দিকে তারা খেলেছে ১ পয়েন্টের জন্যই।

 বাংলাদেশ কোচ মাহবুব হোসেন রক্সিও এটাকে সাফল্য হিসেবে দেখছেন, ‘গুণে-মানে এবং স্বাগতিক সুবিধায়, সব কিছুতেই তারা এগিয়ে। মাঠে তাদের আধিপত্যও ছিল। কিন্তু আমার দল আগাগোড়া খেলেছে পরিকল্পনা অনুযায়ী। ডিফেন্সটা আগে, এরপর কাউন্টার অ্যাটাকে খেলার চেষ্টা করেছে তারা। এই কৌশলে তারা মাঠে এত ভালো সাড়া দিয়েছে, সেটা আমরাও চিন্তা করতে পারিনি। সে কারণেই আমরা ১ পয়েন্ট নিয়ে শুরু করতে পারছি। ’ প্রতিপক্ষের আধিপত্যের ম্যাচ শেষে তাজিকিস্তান-বাংলাদেশ ১ পয়েন্ট করে নিয়ে সমতায়। ড্র ম্যাচের কৃতিত্বটা কোচ বিশেষভাবে দিতে চান ডিফেন্ডারদের, ‘আমাদের পুরো দল ভালো খেলেছে। এর মধ্যে বিশেষ পারফরম্যান্স বললে ডিফেন্স, রহমত দুটো অসাধারণ ক্লিয়ার করেছে। বাদশা ও বিশ্বনাথ খুব ভালো খেলেছে। গোলরক্ষক প্রীতম দুর্দান্ত সেভ করেছে দুটো। পুরো দলের কৃতিত্ব হলো দ্বিতীয়ার্ধে ওদের দলের চাপের কাছে মাথা নোয়াইনি।

ওদের মাঠে গিয়ে ম্যাচ ড্র করা বড় কৃতিত্বের কাজ। প্রথমত প্রতিপক্ষ শক্তিশালী, তার সঙ্গে ওখানকার ঠাণ্ডা হাওয়ায় যেকোনো দল গিয়ে তালগোল পাকিয়ে ফেলে। বাংলাদেশ সিনিয়র জাতীয় দল তো প্রতিবার দুশানবে গিয়ে খেই হারিয়ে গোলের মালা পড়ে ফিরেছে। গত বছর জুনে এশিয়ান কাপ বাছাইয়ে ০-৫ গোলে হেরে ফিরেছিল। ১০ ম্যাচ খেলে জয়ের নিজের কেবল একটাই, ২০১০ সালে কলম্বোয় অনুষ্ঠিত এএফসি চ্যালেঞ্জ কাপে ২-১ গোলে জিতেছিল বাংলাদেশ। বাকি ৯ ম্যাচে দুটি ড্র এবং সাতটি হার। সুতরাং তাজিকিস্তানের মাঠে ড্রয়ের কীর্তিতে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৯ ফুটবল বাছাইয়ে বাংলাদেশের শুরুটা মোটেও খারাপ বলা যাবে না। বাংলাদেশ কোচ মনে করছেন এই ড্র লাল-সবুজ দলকে সম্ভাবনার জায়গায় নিয়ে দাঁড় করিয়েছে, ‘দেশ ছাড়ার সময় বলেছিলাম, প্রথম ম্যাচের ওপর নির্ভর করছে সব কিছু। স্বাগতিকদের কাছে না হারলে পরের দুটো ম্যাচে মালদ্বীপ ও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আমাদের ভালো করার সুযোগ আছে। শেষ ম্যাচ হবে উজবেকিস্তানের সঙ্গে। সুতরাং এই ড্রয়ের ফলে আমরাও হিসাবের মধ্যে চলে এলাম। ’

মন্তব্য
  1. image
    Aaron Miller

    good
    2 min

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন