ঢাকায় সিরামিক পণ???যের আন???তর???জাতিক প???রদর???শনী

by  ডেস???ক রিপোর???টার | | Friday 17th November 2017 |12:02 AM

 ঢাকায় সিরামিক পণ???যের আন???তর???জাতিক প???রদর???শনী

ঢাকায় প্রথমবারের মতো ‘সিরামিক এক্সপো বাংলাদেশ-২০১৭’ নামে সিরামিক পণ্যের আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী হতে যাচ্ছে। আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) তিন দিনব্যাপী এই প্রদর্শনী ৩০ নভেম্বর শুরু হবে। এ প্রদর্শনীতে  বাংলাদেশসহ ১৩টি দেশের ৬০টি প্রতিষ্ঠান অংশ নেবে। প্রদর্শনীটির আয়োজন করছে বাংলাদেশ সিরামিক ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিসিএমইএ)।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে  আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান বিসিএমইএর সভাপতি মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি মঈনুল ইসলাম, সহসভাপতি এম এ জব্বার, সাধারণ সম্পাদক ইরফান উদ্দিন প্রমুখ।

সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মোল্লা বলেন,সিরামিকশিল্প গত সাত বছরে  দ্বিগুণ প্রবৃদ্ধি হয়েছে। বর্তমানে এই শিল্পে ৬২টি প্রতিষ্ঠান আছে। আরও ২০টি পাইপলাইনে আছে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই তারা উৎপাদনে যাবে। তিনি আরও বলেন, সিরামিক শিল্পের প্রধান কাঁচামাল হচ্ছে গ্যাস। সেই গ্যাসের দাম অন্য দেশের চেয়ে কম। শ্রমিকদের তুলনামূলক মজুরিও কম। সে জন্য বাংলাদেশে নতুন নতুন সিরামিক কারখানা হচ্ছে।

তিনি বলেন, চাহিদামতো গ্যাস না পাওয়ায় সিরামিক কারখানাগুলোতে উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে। তবে সরকার নিশ্চয়তা দিয়েছে আগামী বছরের মার্চ–এপ্রিলের মধ্যে তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) চলে আসবে। তখন সরবরাহ বাড়বে, সিরামিকশিল্পে গ্যাসের সংকট থাকবে না। তিনি বলেন, ভোলায় গ্যাস পাওয়া গেছে। সেখানেও বিনিয়োগ হচ্ছে। সিরামিক পণ্য রপ্তানিতে শীর্ষে আছে চীন। তবে তারা ধীরে ধীরে ব্যবসাটি থেকে সরে আসছে। ফলে সিরামিক পণ্য বাংলাদেশের জন্য উদীয়মান খাত হতে যাচ্ছে।

সাধারণ সম্পাদক ইরফান উদ্দিন বলেন,  বর্তমানে সিরামিকশিল্পে ২০টি টেবিলওয়্যার (চায়ের কাপ, পিরিচ, প্লেট ইত্যাদি), ২৬টি টাইলস এবং ১৬টি স্যানিটারি পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান আছে। এসব প্রতিষ্ঠানই দেশের টেবিলওয়্যার পণ্যের চাহিদার সাড়ে ৮৮ শতাংশ, টাইলসের চাহিদার ৭২ দশমিক ২৯ শতাংশ এবং স্যানিটারি পণ্যের চাহিদার ৮৩ দশমিক ৪৩ শতাংশ পূরণ করে। 

আগামী ৩০ নভেম্বর আইসিসিবির চার নম্বর হলে সিরামিক এক্সপোর উদ্বোধন করবেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। প্রদর্শনী আগামী ২ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে। আর মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৭টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য খোলা থাকবে।

মন্তব্য
  1. image
    Aaron Miller

    good
    2 min

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন