খ???যাতিসম???পন???ন সংগীতশিল???পী র???না লায়লার জন???মদিন আজ

by  ডেস???ক রিপোর???টার | | Friday 17th November 2017 |12:04 PM

খ???যাতিসম???পন???ন সংগীতশিল???পী র???না লায়লার জন???মদিন আজ

খ্যাতিসম্পন্ন সংগীতশিল্পী রুনা লায়লার জন্মদিন আজ

বাংলাদেশের সংগীতাঙ্গন যার পদচারণায় বছরের পর হয়ে উঠছে সমৃদ্ধ তিনি সেই রুনা লায়লা। বিশ্বের কাছে যার গান দিয়ে বাংলাদেশে পেয়েছে পরিচিত তিনি রুনা লায়লা। কোটি কোটি মানুষের প্রিয় এই ব্যক্তিত্বের জন্মদিন আজ।

রুনা লায়লার জন্মদিনে তাকে অভিনন্দন জানিয়ে কিংবদন্তি সুরকার-সংগীত পরিচালক আলম খান বলেন, ‘একজন শিল্পী যেমন হওয়া উচিত রুনা লায়লা ঠিক তাই, একজন শিল্পীর যেসব গুণাবলি থাকা প্রয়োজন তার সবই আছে রুনার মাঝে।

রুনা লায়লা তার আজকের অবস্থানের পেছনে বড় ভূমিকা হিসেবে তার মা, পাশাপাশি বাবা এবং বোন দীনা লায়লার কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করেন। ভক্তদের ভূমিকার কথাও উল্লেখযোগ্য বলে অভিমত তার। দীর্ঘ সংগীত ক্যারিয়ারে চলচ্চিত্রে গান গেয়ে রুনা লায়লা এখন পর্যন্ত ছয়বার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। দেবু ভট্টাচার্যের সুরে করাচি রেডিওতে একটি বিশেষ অনুষ্ঠানে প্রথম রুনা লায়লার কণ্ঠে বাংলা গান শোনা যায়। ‘নোটন নোটন পায়রাগুলো’, ‘আমি নদীর মতো কত পথ পেরিয়ে’ শীর্ষক গান তার কণ্ঠে শোনা যায়। তবে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে রুনা লায়লা প্রথম প্লেব্যাক করেন ১৯৭০ সালে নজরুল ইসলাম পরিচালিত ‘স্বরলিপি’তে সুবল দাসের সুর-সংগীতে। এর রেকর্ডিং হয়েছিল লাহোরে। তখন তিনি পাকিস্তানে ছিলেন। গানটি হচ্ছে ‘গানেরই খাতায় স্বরলিপি লিখে বলো কী হবে’। দেশে আসার পর ১৯৭৬ সালে প্রথম প্লেব্যাক করেন নূরুল হক বাচ্চু পরিচালিত ‘জীবন সাথী’ চলচ্চিত্রে। এর সুর-সংগীত করেছিলেন সত্য সাহা। রুনা লায়লার সঙ্গে দ্বৈতকণ্ঠে গেয়েছিলেন খন্দকার ফারুক আহমেদ। এখন পর্যন্ত ১০ হাজারেরও বেশি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন তিনি। ১৮টি ভাষায় গান গাইতে পারেন রুনা লায়লা যা বিশ্ব সংগীত ভুবনে সত্যিই বিরল। আজকের জন্মদিনটি কিভাবে কাটাবেন জানতে চাইলে মানবজমিনকে তিনি বলেন, পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেই কাটবে আজকের দিনটি। তিনি আরো বলেন, সবার কাছে দোয়া চাই যেন যতদিন বাঁচি ততদিন ভালো ভালো গান শ্রোতা-দর্শককে উপহার দিতে পারি। বাংলাদেশের নাম বিশ্বের কাছে যেন আরো উজ্জ্বল করতে পারি।

মন্তব্য
  1. image
    Aaron Miller

    good
    2 min

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন