A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: mysqli::mysqli(): (HY000/1045): Access denied for user 'impressnews24_admin'@'localhost' (using password: YES)

Filename: front/details2.php

Line Number: 57

Backtrace:

File: /home/thenews71/public_html/application/views/front/details2.php
Line: 57
Function: mysqli

File: /home/thenews71/public_html/application/controllers/News.php
Line: 46
Function: view

File: /home/thenews71/public_html/index.php
Line: 315
Function: require_once

আবারও ভর???তি পরিক???ষায় প???রশ???নপত???র জালিয়াতি,কারাদন???ডপ???রাপ???ত ৮ জন

by  ডেস???ক রিপোর???টার | | Friday 27th October 2017 |11:32 PM

আবারও ভর???তি পরিক???ষায় প???রশ???নপত???র জালিয়াতি,কারাদন???ডপ???রাপ???ত ৮ জন

আজ শুক্রবার পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় ৮ জনকে আটক করেছে পুলিশ।জানা যায়,অভিযুক্তরা ভর্তি পরীক্ষায় নকল সরবরাহ এবং প্রশ্নপত্র জালিয়াতির চেষ্টা করেছিল।পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসমিন মনিরা অভিযুক্তদের মধ্যে দুই জনকে দুই বছর করে এবং অন্য ছয় জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড প্রদান করেন।

দুই বছর করে কারাদন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, খালিদ বিন হাফিজ নিলয় (২২) ও রাকিবুল ইসলাম (২১)।তিন মাস থেকে ছয় মাস কারাদন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, মৃদুল হোসেন (২০), রাকিব হোসেন (২২),শরিফুল ইসলাম (২০),শাহরিয়ার আলম (২২),মাহবুবুল আলম (২১) ও হাসান তুষার (২০)।পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম বিশ্বাস জানান, শুক্রবার পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় নকল সরবরাহ এবং প্রশ্ন জালিয়াতি করার জন্য ডিভাইস তৈরি করা হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পরীক্ষার আগেই এই সংঘবদ্ধ চক্রকে আটক করে রাখা হয়।শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র  খালিদ বিন হাফিজ নিলয় এবং রাকিবুল ইসলামের কাছ থেকে ১১টি ডিভাইস পাওয়া গেছে।এদিকে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের প্রথমবর্ষ স্নাতক (ইঞ্জিনিয়ারিং) ও স্নাতক সম্মান এবং ৫ (পাঁচ) বছর মেয়াদী ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার ও বি ফার্ম (প্রফেশনাল) কোর্সের ভর্তি পরীক্ষা শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয়।পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ছাড়াও ১৫ কেন্দ্রে এ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষায় সাত স্তর বিশিষ্ট নিরাপত্তা ব্যবস্থা ছিল। প্রতিটি কেন্দ্রে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করেন।

২১টি বিভাগে ৯১০ আসনের বিপরীতে প্রার্থী ছিল ৪১ হাজার ৮১জন। গড়ে প্রতি আসনের বিপরীতে আবেদনকারী ছিল ৪৫ জন। পরীক্ষায় উপস্থিতির হার ছিল ৯৮ ভাগ।বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আল-নকীব চৌধুরী, প্রো-ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আনোয়ারুল ইসলাম, ট্রেজারার প্রফেসর ড. আনোয়ার খসরু পারভেজ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানসহ জেলা ও পুলিশ প্রশাসন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।

মন্তব্য
  1. image
    Aaron Miller

    good
    2 min

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন